বিদেশী কুকুর পরিচিতি- জ্যাক রাসেল চিহুহুয়া মিক্স, জ্যাক চি


Jack Russell Chihuahua Mix, Jack Chi
জ্যাক রাসেল চিহুহুয়া মিক্স

জ্যাক রাসেল চিহুহুয়া মিক্স কুকুটি জ্যাক রাসেল চিহুহুয়া বা জ্যাকচি নামেও পরিচিত। এই ককুর গুলোর মাঝে আপনি দুই ধরনের কুকুরের বৈশিষ্ট দেখতে পাবেন। একটা হচ্ছে জ্যাক রাসেল টেরিয়ার আরেকটা হচ্ছে চিহুহুয়া। জ্যাক চি কুকুরটিকে কেউ কেউ জ্যকচি বা জ্যাকহুহুয়াও বলে। এই আর্টকেলে আমরা জ্যাক রাসেল চিহুহুয়া মিক্স সম্পর্কে সব জানানোর চেষ্টা করবো।


জ্যাক রাসেল চিহুহুয়া মিক্সের পরিচিতি 

জ্যাক রাসেল চিহুহুয়া মিক্স হচ্ছে একটি ছোট আকারের কুকুর। মূলত দুইটি পিউরব্রিড কুকুর জ্যাক রাসেল টেরিয়র এবং চিহুহুয়া কুকুরের ক্রস বিড্রিং এ জ্যাক চি কুকুরের জন্ম হয়। এই কুকুর গুলো পিউর ব্রিড্রের কুকুর না। এদের শরীরে একসাথে সম্পূর্ন ভিন্ন দুইটি কুকুরের বৈশিষ্ট দেখা যায়। 

জ্যাক চি কুকুরের ইতিহাস 

১৯৮০ সালের পর থেকেই হাইব্রিড বা ক্রসবিড্রের কুকুর গুলোর ব্যাপক জনপ্রিয়তা দেখা যায়। যার ফলে এই হাইব্রিড কুকুর তৈরীর এক ধরনের প্রতিযোগিতা শুরু হয়। বিশেষ করে আমেরিকা এবং ইউরোপে। এই হাইব্রিড বা জেনিটিক্যালি মডিফাই কুকুর তৈরীর জন্য ব্রিডাররা বিভিন্ন ব্রিডের মাঝে ক্রস ব্রিড ঘটায়। সব সময় যে এই ক্রসব্রিড সফল হয় এমনও না তবে অনেক সময় সফল হয়। জ্যাক চি কুকুরটি এই ক্রসবিড্রের একটি সফল অংশ।

এই কুকুরগুলোর পিতা জ্যাক রাসেলের বিকাশ ঘটেছে ইংল্যান্ডে ১৮০০ সালের দিকে এবং মাতা চিহুহুয়া এর জন্ম হয়েছে মেক্সিকোতে ঊনিশ শতকের শুরুতে। জ্যাক সি কুকুর গুলোর কখন এবং কোথায় প্রথম উৎপত্তি হয়েছে তার সম্পর্কে কোন ধারনা নেই। তবে ধারনা করা হয় ১৯৮০ সালের পর যেকোন সময় এদের জন্ম হয় কোন এক ব্রিডারের হাত ধরে। তবে এই কুকুরগুলোর ব্যাপক বিকাশ ঘটেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে।

জ্যাক চি কুকুর গুলোকে কোন স্বীকৃত কেনেল ক্লাব দ্বারা আজো স্বীকৃতি পায় নাই তবে International Designer Canine এ 2009 সালে এরা রেজিষ্ট্রেট হয়।

জ্যাক চি কুকুরের আচরন

যেহেতু দুইটি ভিন্ন কুকুরের মিশ্রনে এদের জন্ম তাই এখন প্রশ্ন আসতে পারে তাহলে এদের আচরন কেমন হবেএদের আচরন সম্পর্কে জানার আগে একটু জেনে নিই এদের পিতামাতার আচরন কেমন। কারন পিতামাতার জীনই এরা বহন করে চলেছে। তাই পিতামাতার আচরনের সাথে এদের মিল থাকাটাই স্বাভাবিক

এদের পিতা জ্যাক রাসেলের জন্ম হয়েছে শিকার ধরার জন্য। ইংল্যান্ডের একজন কৃষক তার খামারের হাঁস মুরগি এবং মাঠের ফসলকে ইঁদুর, বিড়াল এবং শিয়ালের হাত হতে রক্ষা করার জন্য শক্তিশালী কিন্তু আকারে ছোট যে কিনা শিয়ালের বাসায় ঢুকতে পারবে এমন একটি কুকুরের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছেন এবং তারই ধারাবাহিকাতায় ক্রস ব্রিডিং এর মাধ্যমে জ্যাক রাসেল এর উৎপত্তি হয়। তার নাম অনুসারে এর নাম হয় জ্যাক রাসেল। যাই হোক এই জ্যাক রাসেল কুকুরগুলো শিকার ধরার জন্য অভিজ্ঞ।

অপর দিকে মাতা চিহুহুয়া আকারে ছোট একটা কুকুর যেকিনা খেলনা কুকুর হিসেবেই পরিচিত। এদের মাঝে হিংস্রতা নেই। বাসার জন্য একেবারে আদর্শ একটি কুকুর।

এই দুইটা ভিন্ন চরিত্রের সাথে মিলে যখন একটা কুকুর আসে তখন তার মাঝে যেমন খেলানা কুকুরের বৈশিষ্ট আবার শিকারী কুকুরের বৈশিষ্টও থাকে। তবে কখনোই তা ৫০:৫০ হবে না। কারন আমরা জানি কোন প্রানীর প্রতিটা বৈশিষ্ট প্রকাশের জন্য একটি জীন দায়ী। এই কারনে যে জীনটা শক্তিশালী তার বৈশিষ্টই প্রকাশ পায়। জ্যাক চি কুকুরের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য। এরা এদের পিতা মাতা হতে সম্পূর্ন ভিন্ন আচরনের জীন পেলেও যে জীনটি শক্তিশালী তার বৈশিষ্ট তাদের মাঝে দেখা যায়। যার কারনে এরা একটি বৈচিত্রময় চরিত্রের কুকুর।

কখনো এরা এদের মায়ের মতো শান্তখেলাধূলা প্রবন আবার কখনো এরা শিকারী কুকুরের মতো হিংস্রশক্তিশালী ও সতর্ক কুকুর।

তবে পোষা কুকুরের সকল বৈশিষ্ট এদের মাঝে বিরাজমান। এরা প্রভুভক্তপ্রানবন্ত এবং শক্তিশালী একটি কুকুর। এরা প্রচুর দৌড়াতে পারে এবং খুব কম সময়ই এরা শান্ত থাকে। সারাক্ষন কিছু না কিছু নিয়ে ব্যস্ত থাকে।

পোষা কুকুরের মতো এরা বাসায় থাকলে এরা খেলাধূলা করবে মালিকের কোলে উঠবে মানে তখন তাদের মাঝে মায়ের বৈশিষ্ট দেখা যায়।

এরা অনেক সর্তক কুকুর যার কারনে এদের সামনে কোন কিছু নড়াচড়া করলে এরা শিকারী কুকুরের মতো সর্তক হয়ে যায় এবং তাকে অনুসরন করা শুরু করে। বাসায় অন্য কোন পোষা প্রানী যেমন বিড়ালখরগোস কিংবা ইঁদুর থাকলে এরা এদের শিকার করার জন্য ছুটে যাবে। তখন তাদের মাঝে বাবার বৈশিষ্ট দেখা যায়। এই কারনে বাসায় অন্য কোন পোষা প্রানী থাকলে এই কুকুর বাসায় না আনাই ভালো।

বাসায় যদি ছোট বাচ্ছা থাকে তাহলে এই কুকরগুলো পোষার জন্য আদর্শ হবে না। কারন বাচ্ছারা খেলার সময় এদের লেজ ধরে টান দিতে পারে বা কোন ভাবে আঘাত করতে পারে। তখন এরা হংস্র হয়ে উঠে এবং বাচ্ছাকে কামড় দিতেও পারে। তবে বড় বাচ্ছাদের সাথে এরা খুব সহজেই মানিয়ে নিতে পারে।

বাসায় যদি অপরিচিত কেউ আসে তখন এরা জোরে চিৎকার দিয়ে ঘেউ ঘেউ করে ডেকে উঠতে পারে। এই কারনে এরা পাহারাদার কুকুর হিসেবেও বাসায় রাখা যেতে পারে।


জ্যাক চি এর দৈহিক গঠন

জ্যাক চি কুকুরগুলোর বাবা এবং মা দুইটিই খুব ছোট আকারের কুকুর তাই এরাও ছোট আকারের হয়ে থাকে। এরা সাধারনত ১০-১৫ ইঞ্চি পর্যন্ত লম্বা হয়ে থাকে। আর ওজন হয় মাত্র ০৮-১৮ পাউন্ডের মতো। দেহের আকার ছোট হওয়ায় এবং কম ওজনের হওয়ায় এরা খুব দ্রুত দৌড়াতে পারে। যদিও এদের পা গুলো অনেক ছোট হয়ে থাকে।

দেহের আকার ছোট হলেও পেশীগুলো মাংসল ধরনের। মানে শিকারী কুকুরের মতোই। মাথা বাবা জ্যাক রাসেলের মতো ট্রাই এঙ্গুলার। আর চোখ মায়ের মতো বড় গোলাকার এবং মায়াবী।


জ্যাক চি এর গায়ের রং

জ্যাক চির গায়ের পশম আকারে ছোট তবে তা ঘন। দুইটি ভিন্ন ব্রিডের জীন বহন করায় এদের রঙ্গেও বৈচিত্রতা দেখা যায়। এরা সাধারনত কালোসাদাব্রাউনক্রিমগোল্ডেনফন এবং চকোলেট কালারের হয়।  রয়েছে। দ্বি-বর্ণযুক্ত এবং ত্রি-বর্ণও খুব বেশি দেখা যায়সাধারণত কালো এবং বাদামীকালো এবং ট্যানকালো এবং সাদাবাদামী এবং সাদাহালকা বাদামী এবং গাড় বাদামী।


জ্যাক চি এর যত্ন

জ্যাক চি খাটো চুলের এবং খুব কমই ঝরে পড়ে। যার ফলে এদের তেমন গ্রুমিং করতে হয় না। ছোট পশমগুলো আরো মসৃন ও সুন্দর রাখার জন্য সপ্তাহে এব বা দুইবার ব্রাশ করা যেতে পারে।

এরা বর্হিগামী কুকুর এবং উম্মুক্ত স্থানে প্রচুর দৌড়াদৌড়ি করে। যার কারনে বাহিরে টিকসমাইট এবং ব্যাক্টেরিয়া দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার সুযোগ থাকে। তাই সংক্রমন রোধে প্রতি সপ্তাহে দুইবার তাদের কান একটি সুতির বল এবং উষ্ণ পানি দিয়ে সাবধানে পরিষ্কার করা যেতে পারে। একই সাথে সমস্ত জাতের মতোই সপ্তাহে কমপক্ষে দু'বার কুকুরের টুথপেস্ট দিয়ে ব্রাশ করে দাঁত পরিষ্কার রাখতে হবে। ঠান্ডা আবহাওয়া এদের পছন্দ না তাই শীতের মাসগুলিতে তাদের জন্য জ্যাকেটের ব্যবস্থা করতে হতে পারে। নখ বেশী বড় হয়ে গেলে তা কেটে দিতে হবে যাতে তাদের আচড় না লাগে।

এরা অনেক শক্তিশালী কুকুর জন্মগত ভাবে। যদি এরা কোন কারনে পর্যাপ্ত ব্যায়াম কিংবা খেলাধূলা করতে না পারে তাহলে তারা অলস এবং অসুস্থ হয়ে যায়। তাই এদের প্রতিদিন নিয়ম করে ব্যায়াম করাতে হয়। ব্যায়াম বলতে রাস্তায় ঘুরতে নিয়ে যাওয়া কিংবা অন্য কোন খেলনা দিয়ে তাদের ব্যস্ত রাখা।

রাস্তায় এদের নিয়ে বের হলে আরেকটা সমস্যার সম্মুখিন হতে হয়। এদের পিতার স্বভাব অনুযায়ী এরা অনেক খুতখুতে। তাই যখন এদের নিয়ে রাস্তায় বের হয় তখন এরা আশে পাশের বিভিন্ন জিনিসের গন্ধ শুঁকবে এবং বিড়াল পাখি কিংবা অন্য ছোট প্রানী দেখলে তা শিকার করার জন্য ছুটে যেত চায়। তখন এদের নিয়ন্ত্রন করা অনকে কঠিন হয়ে যায়।


বিদেশী কুকুর জ্যাক রাসেল চিহুহুয়া মিক্স
জ্যাক চি কুকুর

জ্যাক চি এর জীবনকাল

সাধারনত মিশ্রজাতের কুকুরগুলোর ক্ষেত্রে জীবনকাল তাদের পিতা মাতার জীবনকালের উপর নির্ভর করে। চিহুহুয়া এবং জ্যাক রাসেল উভয়ই যথেষ্ট দীর্ঘকালীন জাতের কুকুর। চিহুহুয়ার জীবনকাল প্রায় ১৪ থেকে ১৮ বছর এবং জ্যাক রাসেল টেরিয়ারের জীবনকাল প্রায় ১৩ থেকে ১৬ বছর পর্যন্ত। পিতামাতা দুইজনেই লম্বা জীবনকালের হওয়ায় জ্যাক চিও লম্বাজীবনের হয়ে থাকে। জ্যাক চি এর গড় জীবনকাল সাধারণত ১৩ থেকে ১৫ বছর।


জ্যাক চির দাম

একটি কুকুরের দাম অনেক কিছুর উপর নির্ভর করে। একেক দেশে একেক দামে পাওয়া যেতে পারে। আবার পিউর জ্যাক রাসেল এবং চিহুহুয়া হতে প্রাপ্ত পিউর জীন বহন কারী একটি জ্যাক চির দাম অনেক বেশী হবে। আবার লিঙ্গভেদে দাম কিছুটা উঠা নামা করতে পারে। এছাড়াও অনেক সময় আপনি কোন ব্রিডারের কাছ থেকে কিনেছেন তার উপরও দাম নির্ভর করে।

সাধারনত জ্যাক রাসেল চিহুহুয়া মিক্স কুকুরছানাটি দাম প্রায় ২০০ থেকে ৭৫০ মার্কিন ডলারের এর মধ্যে হয়ে থাকে।

অনেক সময় এর ছেয়েও কম দামে জ্যাক চি পাওয়া যেতে পারে। তবে তা কিনার আগে অনেক সর্তক হতে হবে। কারন সস্তা দামে প্রাপ্ত কুকুরগুলো পিউর ব্রিডের কিনা তা নিয়ে সন্দেহ থেকে যায়। এছাড়াও যেহেতু জ্যাক চি একটি মিশ্র জাতের কুকুর তাই ভালো কোন ব্রিডারের কাছ থেকে সার্টিফিকেট সহ সংগ্রহ করাই ভালো। এতে ক্রয়কৃত জ্যাক চির কোন জেনিটিক্যাল রোগ থাকলে তা জানা যায় এবং প্রশিক্ষনের জন্য প্রয়োজনীয় সহায়তাও পাওয়া যায়।


জ্যাক চি এর প্রশিক্ষন

সম্পূর্ন ভিন্ন ও দুইরকম বৈশিষ্ট্যের এই কুকুরগুলোকে পোষ মানানোর আগে ভালো করে প্রশিক্ষন দিতে হয়। একটি ভালো প্রশিক্ষনই পারে জ্যাক চি কুকুরকে আদর্শ পোষা কুকুর হিসেবে গড়ে তুলতে। তবে প্রশিক্ষনটা বিশেষ যত্ন সহকারে করতে হয়। এই কুকুর গুলো অনেক এক্টিভ ও প্রচুর দৌড়াদৌড়ি করে তাই উম্মুক্ত স্থনে প্রশিক্ষন দিলে এরা  পালিয়ে যেতে পারে।

এই কুকুরগুলোর মাঝে নেতৃত্ব দেওয়ার প্রবণতা দেখা যায় যা তারা তাদের পিতা হতে পেয়েছে। ফলে এদের ট্রেনিং এর সময় এরা চাইবে ট্রেনারের উপর কর্তৃত্ব করতে কিংবা ট্রেনার যদি এদের উপর বেশী কর্তৃত্ব দেখায় তা তারা মেনে নিতে পারে না। তখন এরা শিখবে তো নাই বরং উল্টো ট্রেনারকে হয়রানি করবে। এই কারনে এদের ট্রেনিং শেসনটা ছোট রেখে ধৈর্যের সাথে খেলার চলে শিখাতে হয়। যা অনেক সময় কষ্টকর ব্যাপার।

এদের আরেকটা স্বাভাব আছে মাটি খনন করা। এরা এদের ধারালো নখ দ্বারা মাটি খনন করে। যদি কিছু না পায় তাহলে বাসার সোফা, তোশক কিংবা নরম অন্য যা কিছু পাবে তা দিয়ে খোড়াখুড়ি শুরু করে। এই ব্যাপারটা হতে বিরত রাখার জন্য ভালো করে প্রশিক্ষন দিতে হয় ছোট থেকেই।


জ্যাক চি এর প্রজনন

জ্যাক চি জাতের কুকুর গুলো আসে জ্যাক রাসেল এবং চিহুহুয়া এর ক্রস বিডিং এর মাধ্যমে। জ্যাক রাসেল এবং চিহুহুয়া এর মিলনে চিহুহুয়া একসাথে ০৩ থেকে ০৫টি জ্যাক চি বাচ্চার জন্ম দেয়। আবার জ্যাক চি একই জাতের অন্য জ্যাক চি এর সাথে মিলনে একই পরিমান বাচ্ছার জন্ম দেয়।


জ্যাক চি এর খাবার এবং পুষ্টি

আকারে ছোট এই কুকুরগুলো প্রাকৃতিক ভাবেই শরীরে অনেক শক্তি রাখে। আর এই শক্তি ধরে রাখার জন্য এদের পর্যাপ্ত পরিমান পুষ্টিকর খাবার দিতে হয়। সাধারনত প্যাকেটজাত শুকনো খাবার গুলো প্রতিদিন এককাপ পরিমান দিলেই এদের সারা দিনের পুষ্টির চাহিদা মিটে যায়। তবে বাসায় তৈরী খাবারও দেওয়া যায় যদি তা পর্যাপ্ত পরিমান পুষ্টিগুন বজায় রাখতে পারে। কুকুরদের খাবার চাহিদা ও পরিমান এবং ধরন বয়স বাড়ার সাথে সাথে পরিবর্তন হয়। তাই পশু চিকিৎসকের সাথে কথা বলে খাবারের পরিমান ও ধরন নির্ধারন করাই সবছেয়ে ভালো উপায়।


জ্যাক চি এর  স্বাস্থ

বেশীর ভাগ সময় ক্রস ব্রিডের কুকুরগুলো ভালো স্বাস্থের অধীকারী হয়ে থাকে। কারন মাতা পিতা দুই ধরনের থাকায় দুর্বল জীনগুলো প্রকাশ পায় না। যার কারনে বাবা মায়ের স্বাস্থগত সমস্যাগুলো এরা খুব কমই পায়। তবে সম সময় যে এমনটা হয় তাও না। অনেক সময় বাবা মা দুই জনের সমগ্র স্বাস্থগত সমস্যা গুলোও এরা পেয়ে বসে। যাই হোক জ্যাক চি এর বেলায়ও একই কথা প্রযোজ্য। এর অনেক শক্তিশালী এবং খুব কম রোগেই আক্রান্ত হয়। তবে এদের শরীরে মারাত্বক এলার্জি হয়। যার ফলে এদের শরীর চুলকায়। এদের যে সমস্ত স্বাস্থগত সমস্যা দেখা দিতে পারে তা হচ্ছে-

01. Patellar Luxation

02. Tracheal Collapse

03. Heart Problems

04. Hypoglycemia

05. Cardiac problems


জ্যাক চি কুকুরের ভালো দিক

০১. তাদের ছোট আকারের কারণেতারা যে কোনও বাড়িতে সহজে থাকতে পারে বিশেষ করে এপার্টমেন্টে।

০২. একটি কুকুরের দুটি কুকুরের বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা সম্পূর্ণ আলাদা অনুভূতি দেয়।

০৩. অনুগতবুদ্ধিমানশক্তিশালীপ্রাণবন্ত এবং বন্ধুত্বপূর্ণ কুকুর

০৪. তারা খেলতে পছন্দ করে। এছাড়াওএকটি ভাল গার্ড কুকুর।

০৫. বড় বাচ্চাদের সাথে ভাল পোষা প্রাণী হতে পারে।

০৬. তাদের খুব বেশি যত্নের দরকার নেই।

০৭. স্বাস্থ্যকর এবং দীর্ঘকালীন কুকুর।


জ্যাক চি কুকুরের খারাপ দিক

০১. জ্যাক চি কে সামাজিকিকরনের জন্য প্রচুর অনুশীলন করানো প্রয়োজন হয়। এবং এই অনুশীনটা করাতে হয় খুবই র্ধৈযের সাথে।

০২. এদের খনন করার স্বাভাব আছ তাই এরা খেলার জন্য বা খনন করার জন্য কিছু না পেলে সোফা বা তোষকের ক্ষতি করতে পারে।

০৩. ছোট বাচ্চাদের জন্য প্রাথমিক অবস্থায় ভালো নাও হতে পারে।

০৪. এরা একাকীত্ব সহ্য করতে পারে না বলে এদের জন্য আপনাকে প্রতিদিন সময় দিতে হবে।

০৫. শিকারী স্বভাবের কারনে রাস্তায় চলার সময় এরা রাস্তার বিড়াল কিংবা ছোট অন্য প্রানীদের পিছনে ছুটে যেতে পারে।

০৬. পিতামাতার উভয় জাতের বংশগত স্বাস্থ্যের কারনে এরাও স্বাস্থ ঝুকিতে থাকতে পারে।

০৭. বাসার অন্যান্য পোষা প্রানীদের সাথে ভালো নাও হতে পারে।


উপসংহার

কেউ যদি এক সাথে জীবন্ত, প্রভু ভক্ত এবং উদ্যমী কুকুরের কথা চিন্তা করে তবে জ্যাক চি তার জন্য সেরা পছন্দ হতে পারে।

কেউ এমন কুকুর চায় যা ভ্রমণের সময় তার খেলার সাথী হবে এবং একই সাথে তার সুরক্ষার যত্ন নেবে, তাহলে চোখ বন্ধ করে জ্যাক চি বেছে নেওয়া যেতে পারে।

আপনি জ্যাক চিক বাড়িতে আনার আগেমনে রাখতে হবে যে তারা শিকারী প্রকৃতির কারণে বাড়ির আশেপাশে এবং অন্যান্য পোষা প্রাণীগুলির জন্য জ্যাক চি সেরা কুকুর নাও হতে পারে। অবশ্য যদি উপযুক্ত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে পারা যায় তবে জ্যাক চি সেরা পছন্দ হতে পারে।

2 মন্তব্যসমূহ

How is this Article? Please say your opinion in comment box.

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

How is this Article? Please say your opinion in comment box.

নবীনতর পূর্বতন